• রোববার   ২৯ নভেম্বর ২০২০ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৫ ১৪২৭

  • || ১৩ রবিউস সানি ১৪৪২

১৮২

কন্যা সন্তান হলেই গাছ নিয়ে ছুটে যান মাহবুব পলাশ

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

প্রকাশিত: ২৩ আগস্ট ২০২০  

সিরাজগঞ্জের যেখানে কন্যা শিশু সন্তান জন্ম নেয় সেখানেই গাছ নিয়ে ছুটে যান মাহবুব পলাশ। গরীব মানুষের কন্যা সন্তান হলেই বৃক্ষপ্রেমী মাহবুব ইসলাম গাছ উপহার দেন। মাহবুবের মতে, এতে যেমন বৃক্ষরোপণও বাড়বে ঠিক তেমনি সেই গাছ বড় হলে সেই মেয়ের ভবিষৎ নিয়েও আর ভাবতে হয় না।
কর্মস্থল রাজশাহী হোক বা জন্মস্থান সিরাজগঞ্জ হোক। তার দুই সহকর্মী ছুটে যান গাছ নিয়ে। কোন গরীব মানুষের কন্যা সন্তান হলেই তিনি উপহার দেন গাছ। এসব গাছ দিয়ে তিনি তাদের বোঝাতেও সক্ষম হচ্ছেন এতে করে ভবিষ্যতে এটিই তার মেয়ের বিয়েতে কাজে লাগবে। এছাড়া ১৮ বছর আগে যেন গাছ না কাটে, তেমনি মেয়েকে যাতে বিয়ে না দেয় ১৮ বছরের আগে সে পরামর্শ দেয়া হয়। এভাবেই ১০০ পরিবারের কাছে গাছ পৌঁছে দেন। শুরুটা হয় ২০১৮ সাল থেকে। যতদিন যাবে ততদিনই এটি চালিয়ে যাবেন বলে জানান মাহবুব।

বৃক্ষপ্রেমী মাহবুব ইসলাম বলেন, আমার মনে হয় এখনও গরীব ঘরে কোন কন্যা সন্তান হলে সেটিকে আনেকেই বোঝা মনে করেণ। চিন্তায় ভাজ পড়ে তার বাবাদের কপালে। মনে রাখবেন কন্যাসন্তান, দেশের বোঝা নয়, তারা দেশের সম্পদ। কণ্যা সন্তান জন্ম দিন বিনামূল্যে গাছ দেব আমি। দুইটি করে গাছ লাগালে মেয়ের বিয়ে দেয়ার বয়স হতে হতে ১৮ বছরে সেই গাছের দাম দাঁড়াবে লাখ টাকার ওপরে। সেই টাকা দিয়েই গড়ে উঠবে তার ভবিষ্যত।

তিনি আরও বলেন, এটির মাধ্যমে যেমন সেই মেয়েকে নিয়ে পরিবারের ভাবনা কমবে, সাথে সাথে পরিবারটি আরও গাছ লাগাতে উদ্যোগী হবে। এমন করেই গড়ে উঠছে বৃক্ষসজ্জিত বাল্যবিবাহ মুক্ত দেশ। এটিকে আমি ভবিষ্যতে আরও বেশি আকারে সারা দেশে ছড়িয়ে দিতে চাই। পাশাপাশি যত দিন যাবে আমি এটি চালিয়ে যাবো বলে জানান মাহবুব।

আলোকিত সিরাজগঞ্জ
আলোকিত সিরাজগঞ্জ
সিরাজগঞ্জ বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর