• মঙ্গলবার   ১৯ জানুয়ারি ২০২১ ||

  • মাঘ ৫ ১৪২৭

  • || ০৫ জমাদিউস সানি ১৪৪২

৮৫

উল্লাপাড়ায় মুজিববর্ষে ঘর পাবে আরও ৪২ টি অসহায় দুস্থ পরিবার

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

প্রকাশিত: ৩১ ডিসেম্বর ২০২০  

আশ্রয়নের অধিকার,শেখ হাসিনার উপহার প্রতিপাদ্য উল্লাপাড়া উপজেলায় মুজিব শতবর্ষে “প্রধানমন্ত্রীর উপহার সরকারী বসত ঘর” পাচ্ছেন উপজেলার অসহায় দুঃস্থ গৃহ ও ভুমিহীন ৪২টি পরিবার । সচ্ছতার সাথে ঘর দেয়ায় প্রকৃত অসহায় দুঃস্থ এই পরিবারগুলোর আবাসন সমস্য চিরতরে দুর হবে। উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসের মাধ্যমে দ্রুত ঘরগুলো নির্মাণ কাজ চালিয়ে যাওয়া হচ্ছে। ।

দুঃস্থদের মাঝে সচ্ছতার সাথে ঘর বরাদ্দ দিতে আগেই উপজেলা ১৪ টি ইউনিয়নের গৃহ ও ভুমিহীনদের কাছ থেকে আবেদন গ্রহণ করে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিস । দুঃস্থদের কাছ থেকে পাওয়া আবেদন যাচাই বাছাইয়ের জন্য মাঠ পর্যায়ে সরেজমিন তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয় উপজেলা সহকারী কমিশনার(ভুমি)কে । উপজেলা সহকারী কমিশনার( ভুমি) মোঃ নাহিদ হাসান খান সরজমিনে আবেদনকারি ভুমিহীনদের বাড়ী বাড়ী গিয়ে তদন্ত করে গৃহ ও ভুমিহীন ৪২ টি পরিবারের জন্য নাম প্রস্তাবনা উল্লেখ করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অফিসে জমা দেন ।

ওই নামের তালিকা অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রীর আশ্রায়ন প্রকল্পের আওতায় উপজেলার ১৪ টি ইউনিয়নের ৪২ টি পাকা নির্মাণ শুরু করা হয়। একেকটি ঘর নির্মাণের জন্য ১ লাখ ৭১ হাজার টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে । প্রতিটি পরিবার দুই রুম বিশিষ্ট একটি টিন সেড ভবন, তার সাথে থাকছে বারান্দা, রান্না ঘর ও টয়লেট । সরকারি যথাযথ নির্দেশনা মেনে ঘরগুলোর নির্মান কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে ।

উল্লাপাড়া উপজেলার দূর্গানগর ইউনিয়নের মহানন্দা পাড়ার ভূমিহীন বৃদ্ধ সানোয়ার হোসেন (৮০)। বয়সের ভারে এখন তিনি অসুস্থ। স্ত্রী অন্যর বাড়িতে ঝি’য়ের কাজ করে যা পান তাই দিয়ে কোনমতে চলে তাদের সংসার । মাথা গোজার ঠাই বলতে ছিল সরকারি খাস জায়গায় একটি ভাঙ্গা ঝুপড়ি ঘর। সেই বয়োবৃদ্ধ সানোয়ার হোসেন ও তার স্ত্রীকে সরকারি ২শতক খাস জায়গায় এবার এই প্রকল্পের আওতায় নতুন বাড়ি করে দেয়া হচ্ছে। নতুন বাড়ি পাওয়া প্রসঙ্গে জানতে চাইলে এই বৃদ্ধ জানান,সারা জীবন অনেক কষ্ট করে ঝুপড়ি ঘরে থাকছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে বিনামূল্যে ঘর দিয়েছে । এখন আর ঝড় বৃষ্টি,শীত আসলে কষ্ট হবে না।

সানোয়ার হোসেনের মত স্থায়ী এই ঘর পেলে উপজেলার ৪২ টি অসহায়,দুঃস্থ ভূমিহীন পরিবারের আবাসন সমস্য দুর হবে। এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা ইঞ্জিঃ মাহবুবুর রহমান ভুঁইয়া জানান, উপজেলা প্রশাসন থেকে সরজমিনে বসত ঘর গুলোর নির্মান কাজ পরিদর্শন করা হচ্ছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দেওয়ান মওদুদ আহমেদ এর সাথে নির্মানাধীন কাজ পরিদর্শন করে দেখছেন । এছাড়াও তার বিভাগ থেকে সার্বক্ষনিক নির্মাণ কাজের তদারকি করা হচ্ছে । ঘরগুলোর নির্মাণ শেষ হলে শিঘ্রই সেগুলো দুঃস্থদের মাঝে আনুষ্ঠানিকভাবে হস্তান্তর করা হবে।

আলোকিত সিরাজগঞ্জ
আলোকিত সিরাজগঞ্জ
সিরাজগঞ্জ বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর