• সোমবার   ১৩ জুলাই ২০২০ ||

  • আষাঢ় ২৯ ১৪২৭

  • || ২২ জ্বিলকদ ১৪৪১

২০

আওয়ামী লীগই ঝুঁকি নিয়ে সেবা দিয়ে যাচ্ছে: কাদের

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

প্রকাশিত: ২১ জুন ২০২০  

করোনাভাইরাসে দেশ ও জাতির এই কঠিন সময়ে আওয়ামী লীগই ঝুঁকি নিয়ে জনগণের সেবা দিয়ে যাচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

রোববার সরকারি বাসভবন থেকে নিয়মিত ব্রিফিংয়ে ওবায়দুল কাদের এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, করোনায় অনেক রাজনৈতিক নেতা, বুদ্ধিজীবীসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিরা প্রাণ হারিয়েছেন। এর মধ্যে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মৃতের সংখ্যা বেশি। আমাদের দলের নেতাকর্মীরা করোনাভাইরাসের প্রথম থেকেই অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে সাহায্য-সহযোগিতা করে যাচ্ছেন। এ কারণে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা বেশি আক্রান্ত হচ্ছেন, এটা তার প্রমাণ।

করোনা সংকটে অনুমান নির্ভর ওষুধ মজুদ থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, করোনার এই উদ্বেগের সময় অনুমান নির্ভর ওষুধ মজুদ থেকে বিরত থাকতে হবে। এটি অপ্রয়োজনীয় ও হিতে বিপরীত হতে পারে। একইসঙ্গে চিকিৎসকদের পরামর্শ ছাড়া অক্সিজেন ব্যবহার ভয়ংকর হতে পারে।

অনেকে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালনে ব্যর্থ হয়েছে জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, গণমাধ্যমে রিপোর্টে জানতে পেরেছি, অনেকেই করোনাভাইরাসের অনুমান নির্ভর ওষুধ মজুদ ও অক্সিজেন সিলিন্ডার বাসাবাড়িতে মজুদ করছেন। সিলিন্ডার মজুদ করে রেখে দেয়ার ফলে মৃত্যুপথযাত্রী রোগী অক্সিজেন থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। সিলিন্ডার মজুদ করার মতো স্বার্থপর ভাবনার চেয়ে করোনা প্রতিরোধে মনোনিবেশ করুন। অনেকই এরকম অক্সিজেন সিলিন্ডার মজুদ করে যাচ্ছেন। কিন্তু পরিবারের সবাই আক্রান্ত হলে তখন কি করবেন?

এ সময় স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঘরে ঘরে সচেতনতা ও সতর্কতার দুর্গ গড়ে তুলে করোনা প্রতিরোধে অনুমান নির্ভর ওষুধ ও অক্সিজেন মজুদ না করারও আহ্বান জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

করোনা পরীক্ষা ও রিপোর্ট প্রসঙ্গে সেতুমন্ত্রী বলেন, করোনা টেস্ট করতে ও রিপোর্ট পেতে হয়রানির শিকার হতে হচ্ছে, আবার কেউ কেউ দীর্ঘ অপেক্ষায় পড়ছে। এমন অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে সংশ্লিষ্টদের সমন্বয় বৃদ্ধির মাধ্যমে নমুনা গ্রহণ করে অল্পসময়ে রিপোর্ট প্রদানের কার্যকর ব্যবস্থা নেয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। প্রযুক্তির সহায়তা নিয়ে এ সেবা আরো সহজতর করা এখন সময়ের দাবি।

বেসরকারি হাসপাতাল চিকিৎসায় অবহেলার অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, কিছু বেসরকারি হাসপাতাল কোভিড রোগীদের সেবায় প্রশংসনীয় কাজ করলেও এখনো অনেক হাসপাতালের বিরুদ্ধে অবহেলার অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে, এটা শুভকর নয়। একইসঙ্গে অন্যান্য রোগের চিকিৎসাও ঠিক মত হচ্ছে না বলেও রিপোর্ট আছে। অনেকেই হাসপাতাল থেকে হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ঘুরে ঘুরে মারা যাচ্ছেন। এ কঠিন সময়ে হাসপাতাল, মালিক, চিকিৎসক ও সংশ্লিষ্টদের ব্যবসার চাইতে মানবিকতাকে ঊর্ধ্বে স্থান দিতে হবে। 

কলকারখানার মালিকদের শ্রমিক ছাঁটাই না করার আহ্বান জানিয়ে তিনি আরো বলেন, এ সময় কর্মচারী ছাঁটাই নিষ্ঠুর অমানবিক আচরণের মতোই। বর্তমান পরিস্থিতিতে বাড়ির মালিকদের ভাড়াটিয়াদের জন্য আরো মানবিক হওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। আসুন যতটা সম্ভব মানবিক আচরণ করেই এই ক্রান্তিকাল পার করি। নিশ্চয়ই সৃষ্টিকর্তা আমাদের সহায়ক হবেন।

আলোকিত সিরাজগঞ্জ
আলোকিত সিরাজগঞ্জ
রাজনীতি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর